Home / লাইফ স্টাইল / বিলুপ্তির পথে সুস্বাদু ‘রাণী মাছ’

বিলুপ্তির পথে সুস্বাদু ‘রাণী মাছ’

এম.এ.সাবলু হৃদয় সিলেট : বেশি দিন আগের কথা নয়। পাঁচ-সাত বছর আগের কথা। হেমন্ত-শীত মৌসুমের সকালগুলোতে মৎসজীবীরা আমাদের পাড়ায় মাছ বিক্রি করতে আসতেন। তাদের কাছ থেকে প্রচুর তরতাজা সুস্বাদু মাছ পাওয়া যেত। পাড়াবাসী বিলের সেই মাছগুলো জন্য অধীর প্রতিায় থাকতেন। সেই মাছগুলোর ভীড়ে রাণীমাছগুলোও থাকতো। এখনো অবশ্য মৎসজীবীরা মাছ বিক্রি করতে আসেন,তবে রাণী মাছগুলোকে আর দেখা যায় না। রাণীমাছগুলো দেখতে দেখতে প্রায় চোখের আড়ালই হয়ে গেল! আমাদের অতীত স্মৃতির সঙ্গে বাংলার এ চিরন্তন রাণীমাছটি ভালোলাগার উজ্জ্বল উদাহারণ হয়ে মিশে রয়েছে হৃদয়ে। অনেক স্থানে এ মাছটিকে বউ মাছ, বেটি মাছ, পুতুল মাছ, বেতাঙ্গী মাছ প্রভৃতি আঞ্চলিক নামে ডাকা হয়। । রাণীমাছ প্রায় ৬-৭ সেন্টিমিটার পর্যন্ত লম্বা হয়ে থাকে। এরা খাল-বিল, নদী-নালা, হাওর-বাওর ইত্যাদির তলদেশে পরিষ্কার পানিতে বসবাস করতে পছন্দ করে। মে থেকে অক্টোবর মাসের মধ্যবর্তী সময়ে প্রজনন করে থাকে। অক্টোবরের শেষ থেকে ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত যখন বিলের পানি কমে যেতে থাকে তখন এরা জালে ধরা পড়ে বেশি। রাণী মাছসহ অন্যান্য মাছের বিলুপ্তির কারণ প্রসঙ্গে এই গবেষক বলেন, আমাদের দেশে এক সময় উলেখযোগ্য পরিমাণে এ মাছটি পাওয়া গেলেও বর্তমানে এ মাছটির উপস্থিতি অনেকাংশেই কমে গেছে। শুধু রাণীমাছই নয়, মিঠাপানির অনেক সুস্বাদু মাছগুলো হারিয়ে যেতে বসেছে।

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *