Breaking News
Home / জাতীয় / বিভেদ নয়, ঐক্যের ভিত্তিতে নির্বাচন হলেই সুন্দর দেশ গড়া সম্ভব : খালেদা জিয়া

বিভেদ নয়, ঐক্যের ভিত্তিতে নির্বাচন হলেই সুন্দর দেশ গড়া সম্ভব : খালেদা জিয়া

khaledaa

৬ জুলাই, শ্রীনগর নিউজ : ‘বিভেদ- বিভাজন নয়, ঐক্যর ভিত্তিতে একটি অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচন হলেই দেশটাকে সুন্দরভাবে গড়ে তোলা সম্ভব’- বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি চেয়ারপার্সন এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া। তিনি আরো বলেন, সত্যিকারভাবে সকলের অংশগ্রহণে দেশে একটা সুষ্ঠু নির্বাচন হতে হবে। সেখানে যারাই জিতবে, তারাই সরকার গঠন করবে। এখানে বিভেদ-বিভাজন নয়, সকল শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ করলেই আমরা দেশটাকে সুন্দরভাবে গড়ে তুলতে পারবো। তখনই মুক্তিযুদ্ধের ৩০ লাখ শহীদদের প্রতি আমরা সম্মান দেখাতে পারব, মুক্তিযুদ্ধে চেতনা বাস্তবায়ন করতে পারব। রাজধানীর গুলশানের হোটেল লেকশোরে সোমবার সন্ধ্যায় ‘বিকল্পধারা বাংলাদেশ’ আয়োজিত ইফতার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে তিনি এমন মন্তব্য করেন। বর্তমান সরকারকে ‘অনিবার্চিত’ অভিহিত করে তিনি বলেন, বতর্মান অগণতান্ত্রিক ও অনিবার্চিত সরকারের আমলে মহিলারা প্রতিনিয়ত নিযার্তিত ও অত্যাচারিত হচ্ছে । জাতীয় সংসদে মহিলারা অপমানিত হচ্ছে। ‘মহিলারা শো-পিছ’ – সংসদে এইচএম এরশাদের এরকম বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, স্ব-ঘোষিত বিরোধী দল, তাদের নেতা। যার বউ হয়েছেন লীডার অব দ্য অপজিশন। বিনা নিবার্চনে লীডার অব দ্য হাউজ কিংবা বিরোধী দলীয় নেতা দুইজনই মহিলারা। সেই সংসদে যদি বলা হয়, মহিলা সব শো-পিছ! যেখানে জনসংখ্যার ৫০ ভাগ মহিলা রয়েছেন তাদের কি অবস্থা। যে সংসদে আমাদের মা-বোনদের এভাবে অসন্মান করা হয়। যে লোক মহিলাদের সন্মান দিতে জানে না, তাদের নিয়ে যারা দল করে, তারা কোনো দিনও মানুষকে সন্মান দিতে পারবে না, গণতন্ত্রও আনতে পারবে না। তারা কোনোদিন গণতন্ত্র আনেনি বরং হরণ করেছে। সুষ্ঠু নিবার্চন সম্পর্কে বেগম খালেদা জিয়া বলেন, আজ সুষ্ঠু নিবার্চন প্রয়োজন। আমরা বলি না,মারামারি, খুনাখুনি, ব্যালট বাক্স ছিনতাই করে ক্ষমতায় যাবো, জিতবো। আমরা অমুক হবো, তমুক হবো। সেটা নয়। বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে এক টেবিলে বিকল্পধারা‘র সভাপতি সা্বেক রাষ্ট্রপতি একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী ছাড়াও জাতীয় পার্টির কাজী জাফর আহমদ, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জেএসডি‘র আসম আবদুর রব, কল্যাণ পার্টির সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, গণফোরামের সুব্রত চৌধুরী, বিএনপির আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, বিকল্পধারা‘র মহাসচিব অবসরপ্রাপ্ত মেজর আবদুল মান্নান ও যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি চৌধুরী। মুসলিম লীগের নুরুল হক মজুমদার, লেবার পার্টির মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, হামদুল্লাহ আল মেহেদি, সাম্যবাদী দলের সাঈদ আহমেদ, ইসলামী ঐক্যজোটের মুফতি ফয়েজুল্লাহ, কল্যাণ পার্টির এমএম আমিনুর রহমান প্রমূখ নেতারা ছিলেন। বিএনপি নেতাদের মধ্যে নরুল ইসলাম খান, সেলিমা রহমান, এজেডএম জাহিদ হোসেন, এবিএম আশরাফউদ্দিন নিজান, শিরিন সুলতানা, রাবেয়া সিরাজ, শামা ওবায়েদ, ঢাকা উত্তরের মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল ইফতারে অংশ নেন। সাবেক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আবুল হাসান চৌধুরী, অধ্যাপক তোফায়েল আহমেদ, কলামিস্ট মাহফুজউল্লাহ, ব্যারিস্টার রুহিন ফারহানা ছাড়াও একজন বৃটিশ কুটনীতিকও ছিলেন ইফতারে।

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *