Home / বাংলাদেশ / লৌহজংয়ে বৈশাখী মেলা ও সাংস্কৃতি অনুষ্ঠানের ব্যাপক আয়োজন শুরু

লৌহজংয়ে বৈশাখী মেলা ও সাংস্কৃতি অনুষ্ঠানের ব্যাপক আয়োজন শুরু

মোঃ রুবেল ইসলাম. তাহমিদ. (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধিঃবৈশাখ উপলক্ষে উপজেলা যুবসমাজের উদ্যোগে পদ্মারিসোর্ট ও থানা মাঠে প্রথম দিন সকাল থেকে ৭দিন ব্যাপী বৈশাখী মেলার আয়োজন ও প্রভাতী সংগীত, সাংস্কৃতি অনুষ্ঠান,আনন্দ,পান্তা ইলিশ উৎসবসহ নানা আয়োজনের আলোচনা সমাবেশ, ইলিশ পান্তা ও ঘুড়ি উৎসব সহ বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। আয়োজন করেন বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠন ও বিভিন্ন পেশার ব্যক্তিবর্গ সহ ও মেদিণী মন্ডল আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ,মোঃ আশরাফ হোসেন খান ।উপজেলার মাওয়া স্মৃতি সংঘের আয়োজনে প্রথম দিন সকাল-সন্ধ্যা বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বর্ষবরণ উদযাপন করা হবে। মাওয়া বাজার মাঠে এছাড়া স্যার জগদীশ চন্দ্র বসু ঠাকুরের বাড়ীতে বৈশাখী মেলা আয়োজন করা হপ্রু নতুন বর্ষ উপলক্ষে ঘোড়াদৌর পদ্মার পাড়ে হাজার হাজার লোকের সমাগম হবে। বছরের স্মৃতি বৈশাখী মেলা। প্রতি বছরের ন্যায় আয়োজন করে যুব সংঘের এই আয়োজন ৭দিন ব্যাপি পরিচালনা হবে। ঢাকা থেকে ৩০ কি.মি. দূরে মুন্সীগঞ্জ জেলার লৌহজং পদ্মা নদীতে চড়ের উপর এই রিসোর্টটি । পদ্মা নদীর পাড়ে অবস্থিত বলেও জায়গাটি অতি মনোরম আর সুন্দর। বর্ষা ঋতুর সময় আরো বেশি ভালো লাগে। যাতায়াত ব্যবস্থা – ঢাকার গুলিস্থান, সায়েদাবাদ ও যাত্রাবাড়ী থেকে এই রুটে বিভিন্ন পরিবহনের অসংখ্য বাস প্রতি ১০/১৫ মিনিট পর পর চলাচল করে। গুলিস্থান সুন্দরবন স্কোয়ার মার্কেটের পূর্ব পাশ এবং যাত্রাবাড়ী গোলচত্বরের পূর্ব-দক্ষিণ দিক থেকে ঢাকা-মাওয়া ও ঢাকা-লৌহজং এর বাস ছেড়ে আসে । ঢাকা থেকে সড়কপথে এই জেলার ভাড়া ৬০ টাকা। মাওয়া শিমুলিয়া ফেরিঘাট থেকে রিসোর্টে যাওয়ার জন্য রির্সোটের নিজস্ব স্পীডবোট রয়েছে। পদ্মা নদীর টাটকা ইলিশের তৈরি বিভিন্ন ধরনের খাবার খেতে চাইলে যেতে পারেন পদ্মা রিসোর্টে।এছাড়া আরও রয়েছে দেশি বিদেশী টাটকা শাকসবজি, গরু, মুরগি ও হাসের মাংস। এছাড়া মৌসুমি ফলমূল তো রয়েছেই। সকালের নাস্তার জন্য জনপ্রতি খরচ পড়ে ১০০ টাকা এবং দুপুর ও রাতের খাবারের জন্য জনপ্রতি খরচ পড়ে ৩০০ টাকার মতো। পর্যটকগণ ইচ্ছা করলে অর্ধেক বেলা অথবা পুরো ২৪ ঘন্টার জন্য কটেজ ভাড়া নিতে পারেন।সকাল ১০ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত ভাড়া ২ হাজার টাকা। সকাল ১০ টা থেকে পরের দিন সকাল ১০ টা পর্যন্ত ভাড়া ৩ হাজার টাকা।

 

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *