Home / খেলাধুলা / শ্রীনগরে আইপিএল ক্রিকেট খেলা নিয়ে চলছে জম জমাট জুয়ার আসর

শ্রীনগরে আইপিএল ক্রিকেট খেলা নিয়ে চলছে জম জমাট জুয়ার আসর

শ্রীনগর(মুন্সীগঞ্জ) শাজাহান খানঃ টেলিভিশনে ভারতিয় আইপিএল ক্রিকেট খেলা নিয়ে মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম-গঞ্জে চলছে জম জমাট জুয়ার আসর। যুবক ও বয়স্কদের পাশা-পাশি এখন ছোট ছোট স্কুল পড়ুয়া ছেলেদেরকেও আইপিএল ক্রিকেট খেলা নিয়ে জুয়া খেলতে দেখা গেছে। সাধারনত উপজেলার বিভিন্ন চায়ের দোকান,সেলুন ও হোটেল গুলোতে ভারতিয় আই পি এল ক্রিকেট খেলা নিয়ে সব চাইতে বেশি জুয়া খেলা হয়ে থাকে। ভারতিয় বিভিন্ন ক্রিকেট দলের অংশ গ্রহনে আইপিএল খেলা হয়ে থাকে। জুয়ারুরা টেলিভিশনে ভারতিয় আই পিএলে অংশ গ্রহন কারী ক্রিকেেট দল হতে তাদের পছন্দ করা দল বেছে নেয়। এক জনের পছন্দ করা দলের সাথে অন্যের পছন্দ করা ক্রিকেট দলের বাজি ধরে খেলা হয়। ৫,১০ হাজার টাকা থেকে শুরু করে লক্ষ লক্ষ টাকা বাজি হয়ে থাকে। হেরে যাওয়া দলের সমর্থকে জিতে যাওয়া ক্রিকেট দলের সমর্থকে বাজি ধরা টাকা দিয়ে দিতে হয়। আবার হার-জিত নিয়েও উভয় দলের সমর্থকদের মধ্যে হাতা-হাতি সহ মারা মারির মত ঘটনাটেলিভিশনে আইপিএল ক্রিকেট খেলা আরম্ভ হলে অনেকে ক্রিকেট ব্যাটসম্যান প্রতি বল ও প্রতি ওভারে কত রান করবে তা নিয়েও জুয়া খেলা হয়ে থাকে। আইপিএল খেলায়ও দালাল রয়েছে। দালালদের কাছে বিভিন্ন এলাকার ক্রিকেট জুয়ারুদের নাম্বার রয়েছে। দালালেরালল মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে আইপিএল খেলায় আগ্রহী এক জনের সাথে অন্য জনের সমন্ময় ঘটিয়ে দেয়। উভয় দলের মধ্য এই সমন্ময় ঘটিয়ে দেওয়ার ফলে দালালেরা মোটা অংকের দালালি পেয়ে থাকেন। যে সমর্থকের দলই জিতুক না কেন? তাতে দালালদের কিছু যায় আসেনা। সমন্ময় ঘটিয়ে দিতে পারলেই তাদের লাভ। কখনও কখনও দালালেরা আইপিএল ক্রিকেট খেলায় বাজি ধরতে সমর্থকে নিজের পকেট থেকে মোটা অংকেরও্ টাকা কর্জ দিয়ে খেলায় বাজি ধরতে উদ্ভুদ্ধ করে থাকেন। অনেকে আইপএল খেলায় বার বার হেরে যেয়ে বিষন্মতায় বিভিন্ন ধরনের নেশা দ্রব্য সেবন সহ নানা ধরনের অনৈতিক কার্যকলাপে লিপ্ত হয়ে পরেন। দিন দিন আসংকা জনক ভাবে বেড়ই চলছে আইপিএল খেলা নিয়ে জুয়া। ফলে উপজেলার সচেতন অবিভাবকেরা তাদের সন্তানদের নিয়ে থাকছেন সারাক্ষন নানা ধরনের দূশ্চীন্তায়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন অভিবাবক বলেন, ক্রিকেট খেলা অনেকেই উপভোগ করে। তবে শুনেছি ইদানিং কিছু যুবক ব্যবসায় মনোযোগ না দিয়ে। খেলাকে জুয়া হিসেবে বেছে নেওয়ায় আজ তারা ব্যবসা গুটিয়ে আজ তারা দিশে হারা হন্যে হয়ে ঘুরছেন। উপজেলার সচেতন অভিবাবকদের একটাই দাবী টেলিভিশনে আইপিএল খেলা নিয়ে কেউ যাতে জুয়া খেলতে না পারে। সে ব্যপারে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহন করে যুব সমাজকে ধংসের হাত থেকে রক্ষা করতে অতিসত্তর প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন উপজেলার সচেতন অভিবাবক ও সুধী মহল।

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *