Home / সম্পাদকীয় বিভাগ / সম্পাদকীয় || শ্রীনগরে খাল-বিল ভারাট ও দখল

সম্পাদকীয় || শ্রীনগরে খাল-বিল ভারাট ও দখল

শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) সংবাদদাতা ঃ শ্রীনগর উপজেলায় খাল-বিল রক্ষান-বেক্ষনের অভাবে দখল ও ভরাট হয়ে যাচ্ছে। ইতোমধ্যেই নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে বহু খাল। এতে করে বর্ষাকালে নিম¥াঞ্চলে দেখা দেয় জলাবদ্ধতা। এলাকাবাসীর অভিযোগ প্রতিবছরই শ্রীনগর উপজেলার নিম¥াঞ্চলের মানুষ বর্ষাকালে জলাবদ্ধতার শিকার হয়ে অবর্ননীয় দূর্ভোগের শিকার হয়ে আসছে। বর্ষা আসছে, এবারও দুর্ভোগে পড়বে এ উপজেলার মানুষ। অথচ খালগুলো উদ্ধার করে পানি চলাচলের উপযোগী করা হচ্ছেনা। অন্যদিকে অনেক এলাকায় খালগুলো ভরাট ও দখল হয়ে যাওয়ায়। বর্ষাতেও বন্যার পানি পৌছায়না। ফলে এসব এলাকার উর্বর জমি অনুর্বর হয়ে যাচ্ছে। কৃষকরা ফসল ফলাতে পারছেন না পানির অভাবে। এছাড়াও খাল গুলো দখল করে গড়ে তোলা হচ্ছে নানা ধরণের স্থাপনা।

শ্রীনগর উপজেলায় এই খাল দখলদার বাহিনীর দাপট দিনদিন বাড়ছে। প্রতিরোধ ও খাল সংরক্ষনে কোন উদ্যোগ না থাকায় শ্রীনগর উপজেলার অধিকাংশ খালের এখন নানা স্থাপনা গড়ে উঠেছে।

শ্রীনগর উপজেলার এক পরিসংখ্যানে উল্লেখ করা হয়েছে এ উপজেলায় ১৪টি খাল তালিকায় থাকলেও বাস্তবে নেই । অধিকাংশ খাল বালি দিয়ে ভরাট করা হয়েছে। এসব খাল এখন শুধু নামে মাত্র। অধিকাংশ দখলে চলে গেছে। এ গুলোতে গড়ে তোলা হচ্ছে বাসাবাড়ী দোকানপাটসহ নানা স্থাপনা। ফলে পানি চলাচল ব্যাহত হওয়ায় এখানকার শিল্প কারখানা বর্জ্য বিভিনè স্থানে জমে পচে মজে দূর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। পরিবেশ দূষন করছে। মুন্সীগঞ্জ পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তার এক্ষেত্রে দায়িত¦হীনতার পরিচয় দিচ্ছে বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ। অভিযোগে তারা জানায় শ্রীনগর উপজেলা হচ্ছে শিল্প এলাকা। অথচ পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তার মাঝে মধ্যে শ্রীনগর উপজেলায় আসলেও তারা এসব দৃশ্য দেখে চলে যান। প্রতিকারে কোনব্যবস্থা নিচ্ছেন না। আর এতে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে শ্রীনগর উপজেলার মানুষ। এখানকার পরিবেশ সচেতন ব্যাক্তি ও চিকিৎসকরা অভিযোগে জনান, সেমি টাউনের কারনে বর্জ্য আবদ্ধতা জনস¦াস্থ্যের জন্য খুবই ক্ষতিকর। ফলে শ্রীনগর উপজেলায় নানা জটিল রোগে আক্রান্ত হচ্ছে লোকজন।
অন্যদিকে শ্রীনগর উপজেলায় কয়েকটি খাল উপকন্ঠে অবস্থিত। খাল-বিল দখল ও ভরাট করে বিভিনè ব্যানার ধারি কোম্পানীর জায়গা সম্প্রসারণ করছে। খাল ভরাট ও দখলের বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ প্রত্যক্ষ করে আসলেও খাল রক্ষায় কোনো পদক্ষেপ নিতে এগিয়ে আসছেনা। নিরীহ মানুষের জমি দখলে নিচ্ছে নাম ধারীণ কোম্পানীর মালিকার। শ্রীনগর উপজেলার সুশীল সমাজের কয়েকজন জানান, সেমি টাউন গড়ে উঠার বিষয়টি আমাদের জন্যে সুখবর। কিন্তু এই সেমি টাউন গড়ে তোলার আড়ালে জমি দখলের ব্যবসা জমজমাট হয়ে উঠেছে। বালু দিয়ে ভরাট করে কৃষি জমিদখরে ব্যবসাকে জমজমাট করে তুলেছে দখলদারা নিজেদের ক্রয় করা কৃষি জমি ভরাট করার পাশাপাশি অন্যের জমিও বালু দিয়ে ভরাট করে নিচ্ছে এই টাউনের মালিকারা। প্রতিবাদ করলে সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে ভয়ভীতি দেখানো হয় বলে অভিযোগে প্রকাশ।
শ্রীনগর উপজেলার আওয়ামী লীগের কয়েক জন নেতৃবৃন্দু জানান শ্রীনগর উপজেলায় খাল-বিল দখলের ঘটনা সত্য। সাইন বোর্ড ধারী কোম্পানীর মালিক ও দখলদার বাহিনী নানাভাবে খাল-বিল ও কৃষি জমি দখল বার্নিজ্য অব্যাহত রেখেছে। এতে করে নিরীহ ও গরিব লোকজন ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন বেশি। প্রায়ই এ ধরনের অভিযোগ নিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত লোকজন আমার/আমাদের কাছে আসেন।

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *