Home / বাংলাদেশ / চট্টগ্রাম বিভাগ / রামগড়ে শারদীয় দূর্গা পুজার প্রতিমা তৈরির কাজ শেষ পর্যায়ে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহন

রামগড়ে শারদীয় দূর্গা পুজার প্রতিমা তৈরির কাজ শেষ পর্যায়ে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহন

এমদাদ খান (রামগড়) প্রতিনিধি:

আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর মহাষষ্ঠির মধ্যে দিয়ে শুরু হবে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। এ উপলক্ষে রামগড় উপজেলায় ৩ টি মন্ডপে চলছে শারদীয় দুর্গা পুজার প্রস্তুুতি। মন্ডপে দিনরাত প্রতিমা তৈরির কাজে ব্যস্ত সময় পার করছে কারিগররা। ২৬ সেপ্টেম্বর পুজা শুরু হয়ে ৩০সেপ্টেম্বর প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে সমাপ্তি ঘটবে। আয়োজকরা বলছেন, বিগত বছরের তুলনায় এ বছর দুর্গোৎসবে প্রতিমা তৈরির ব্যয় বৃদ্ধি পাওয়ায় হিমশিম খেতে হচ্ছে তাদের। এরপরও থেমে নেই তাদের কোনো আয়োজন। রকমারী আলোকসজ্জার বর্ণালী বাহারে সাজানো হচ্ছে পুজা মন্ডপ ও তার আশপাশ এলাকা। হাতে আছে আর মাত্র কয়েক দিন বাকি। তাই কারিগররা রাত-দিন চালিয়ে যাচ্ছে তাদের সাজসজ্জা কাজ। সব মিলে উৎসবের রংয়ে সেজেছে রামগড়।

জানা যায়, দুর্গাদেবী অসুর দমনের শুভ শক্তি নিয়ে পৃথিবীতে আগমন করবেন। দুষ্টের দমন আর সৃষ্টের পালনের জন্যই দশহস্তে দেবী দূর্গা স্বর্গ থেকে মর্ত্যলোকে আগমন করেছিলেন। এরই ধারাহিকতায় হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ গুলো প্রতি বছর শারদীয় উৎসব হিসেবে দূর্গাপূজা উদযাপন করে আসছে। অপরদিকে পরিবার পরিজনের জন্য কেনা কাটায় ব্যস্ত সময় পার করছেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা। ঘরে বাইরে পূজাকে ঘিরে চলছে ব্যস্ততা। জামা কাপড় তৈরি, কেনা-কাটায় সরগরম রামমগড়ের বিপণি বিতান গুলোতে। শারদীয় দুর্গা উৎসবকে কেন্দ্র করে চারপাশে চলছে এখন উৎসবের আমেজ।

সরোজমিনে রামগড় উপজেলা ৩ টি পূজা মন্ডপের কারিগরা দুর্গা পূজা শুরুর থেকে ৩ মাস আগে থেকেই প্রতিমা তৈরিতে সময় নিয়েছেন। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা দক্ষ কারিগররা মন্দিরে শুরু করেন এসব প্রতিমা বানানোর কাজ। ইতিমধ্যে প্রতিমা গড়ার প্রধান কাজ প্রায় শেষ হয়েছে। এখন শেষ মুহুর্তে কারিগররা তাদের নিপুন হাতের প্রতিমা সাজ গোছ করার কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন।
কারিগররা জানান, বংশ পরম্পরায় এ পেশায় জড়িত আছেন তারা। বাপ দাদার কাছ থেকে শেখা কাদা মাটি আর খড় দিয়ে কিভাবে প্রতিমা তৈরির কাজ করতে হয়। বছরের এই সময়ে কাজের চাপ বেশি তাই রাত দিন পরিশ্রম করে মনের মাধুরী মিশিয়ে দুর্গাপ্রতিমা তৈরি করছে। তবে রং, কাপড় ও মুকুট দিয়ে এক সেট তৈরি করতে সময় লাগে ৮-১০ দিন।

রামগড় পূজা উদযাপন পরিচালনা পরিষদ ও রামগড় শ্রী শ্রী দক্ষিণেশ্বরী কালীবাড়ী সভাপতি জানান, রামগড়ের প্রত্যেকটি পূজা মন্ড়পে এখন প্রতিমা তৈরির কাজে ব্যস্ত কারিগররা পূর্বের ন্যায় এবারো শান্তিপূর্নভাবে আমরা দুর্গাপূজা পালন করতে পারব।

রামগড় থানার অফিসার ইনসার্জ(ওসি) শরিফুল ইসলাম বলেন, আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে আমরা মন্ডপগুলোতে বিশেষ নিরাপত্তা দিয়ে থাকব। পূজা মন্ডপে কোন অপীতিকর যটনা না যটে সে জন্য ব্যাপক প্রস্তুুতি গ্রহন করা হয়েছে।

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *