Home / বাংলাদেশ / ঢাকা বিভাগ / সিরাজদিখানে পুলিশের নাম বিক্রি করে টাকাহাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ।

সিরাজদিখানে পুলিশের নাম বিক্রি করে টাকাহাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ।

সিরাজদিখান (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে পুলিশের নাম বিক্রি করে টাকা হাতিয়ে নেয়ারঅভিযোগ উঠেছে মোঃ রাজু (৩৫) এর বিরুদ্ধে। সে উপজেলার ইছাপুরাইউনিয়নের পশ্চিম রাজদিয়া গ্রামের মৃত পান্নু শেখের ছেলে। ৩০শেজানুয়ারী দুপুর সাড়ে ১২টায় নেপচুন কোল্ডস্টোরেজ এর পিছন থেকে রাজু(৩০) শরিফ (৩০) আলমগীর (৩৭) নামে তিন ব্যাক্তির কাছ থেকে পুলিশের নামবিক্রি করে নগদ ৪ জাহার ৫শত হাজার টাকা ও দুটি মোবাইল ফোনহাতিয়ে নেয় রাজু। ভুক্তভোগী মোঃ আলমগীর জানান, আমি একজন সিএনজি ড্রাইভার। ৩০তারিখে আমরা তিনজন নেপচুন কোল্ডস্টোরেজের পিছনে সময় কাটানোরজন্য তাশ খেলছিলাম। হঠাৎ রাজু এসে আমার সাথে থাকা শরিফকে লাঠিমেরে বলে বাইরে পুলিশ এসে দাড়িয়ে আছে। তোরা এখানে জুয়া খেলছিসতোদের এখন পুলিশের হাতে দিয়া দিব। যা আছে দে আমি তাদের দিয়েআসি। টাকা না দিলে পুলিশ তোদের থানায় নিয়ে যাবে। রাজু আমারপকেট থেকে ৪ হাজার ৫ শত হাজার টাকা ও দুটি চায়না মোবাইল ফোননিয়ে গিয়ে আমাদের কাছে আরো ১০ হাজার টাকা দাবী করে। ১০ হাজারটাকা না দিলে সে আমাদের ইয়াবা দিয়ে পুলিশ দিয়ে ধরিয়ে দিবে বলেচলে যায়। আমি রাজু ও শরিফ পুলিশের ভয়ে তাকে ১০ হাজার টাকা দিব বলেকোল্ডস্টোরেজের বাইরে এসে দেখি কোন পুলিশ নাই। পরে কোল্ডস্টোরেজ এরসামনের চায়ের দোকানে জিজ্ঞাস করে জানতে পারি এখানে কোন পুলিশআসে নাই। রাজু আমাদের দুটি মোবাইল ফোন সন্ধায় তার লোক দিয়েফিরিয়ে দিয়ে যায়। আমরা যদি কোন অন্যায় কাজ করে থাকি তাহলে সেঅন্যায়ের বিচার করার জন্য দেশে পুলিশ আছে, আইন আদালত আছে। রাজুকেন পুলিশের ভয় দেখিয়ে আমাদের কাছ থেকে টাকা নিবে। পরে ঘটনাটিআমরা স্থানীয় গণ্যমান্য লোকদের জানাই। সিএনজি চালক আলমগীর আরোজানান, রাজু এলাকায় তার সঙ্গীদের কাছে ইয়াবা ট্যাবলেট বিক্রি করেএবং নিজেও সেবন করে কিন্তু সুনির্দিষ্ট কোন তথ্য প্রমান না থাকায়সে ধরাছোঁয়ার বাইরে থাকে। জানা গেছে, রাজু এলাকায় পুলিশের সাথে সু-সম্পর্ক বজায় রেখেপুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে পুলিশের নাম বিক্রি করে গরিব অসহায়লোকদের কাছ থেকে পুলিশে ধরিয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষটাকা। এছাড়া নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই এলাকার একাধীক লোক জানান,জুয়ার আড্ড, মাদকের স্পট থেকে রাজু পুলিশের ভয় দেখিয়ে মাসওয়ারানিচ্ছে। রাজুকে প্রতিদিন সিরাজদিখান থানার সামনে চায়ের দোকানেবসে আড্ডা দিতে দেখা যায়। সিরাজদিখান থানা পুলিশ চা খেতে বাকোথায় যাওয়ার জন্য বের হলে স্যার স্যার বলে ডেকে জোর করে চা খায়িয়েসাধারণ মানুষকে বোঝায় তার পুলিশের সাথে ভাল সম্পর্ক। আর সেইসুবাদে ২ একটি গোপন তথ্যও পুলিশকে দেয়। তাতে করে পুলিশ যেনবুঝতে না পারে সে পুলিশের নাম বিক্রি করে এলাকার আদিপত্য বিস্তারকরছে। তার এই অপকর্মে এলাবাসী অতিষ্ট হয়ে পরেছে। এব্যাপারে অভিযুক্ত রাজু জানান, আমি তাদের পুলিশে না দিয়ে ভুল করেছি।পুলিশের নাম বিক্রি করে মানুষের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেয়ার কথাজিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, আমি তাদের কাছ থেকে মাত্র ১ হাজার টাকানিয়েছি। সাড়ে ৪ হাজার টাকা ও মোবাইল নেইনি। একাজ করাটা আমার
ভুল হয়েছে। রাজু সাংবাদিকদের নিউজটি না করার জন্য টাকার লোভদেখিয়ে বলেন, নিউজটা কইরেন না। আপনাদের সাথে দেখা করছি। সিরাজদিখান থানার ওসি (অপরাশেন) গাজী সালাউদ্দিন জানান, যদি কেউপুলিশের নাম বিক্রি করে মানুষের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেয় তাহলেতাকে আইনের আওতায় আনা হবে। ইং-০৯/০২/২০১৮ খ্রিঃ

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *