Home / বাংলাদেশ / লৌহজং শিমুলিয়া ঘাটে আগুন

লৌহজং শিমুলিয়া ঘাটে আগুন

মুন্সীগঞ্জ সংবাদদাতা মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়ার ১নং লঞ্চ ও সিবোর্ট ঘাটে তেলের দোকানসহ ১৩টি ফলের দোকানে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। আগুনে ৩টি তেলের দোকান ও ১০টি ফলের দোকান ও ২টি সিবোর্ড পুড়ে গেছে। স্থানীয়রা জানায় রবিবার বেলা পৌনে ২ টার দিকে ১নং ফেরিঘাট এলাকার আসলামের ডিজেল ও অকটেনের তেলের দোকান থেকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হয়।এসময় ১নং ঘাটের কাছে ১০টি ফলের দোকান ও আরো ২টি তেলের দোকানে মুহুর্তে আগুনের লিলিহান শিখা ছড়িয়ে পড়লে দোকান গুলোসহ সাথে থাকা ২টি সিবোর্ডও পুড়ে যায়। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বিআইডব্লিউটিসি”র শিমুলিয়া ঘাট উপ-মহাব্যবস্থাপক শাহ মোঃ খালেদ নেওয়াজ জানান, তেলের দোকান থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। তারপর পাশের বেশ কয়েকটি দোকানে ছড়িয়ে পড়ে এসময় দুটি স্পীড পুড়ে যায়। তবে কিভাবে আগুন লেগেছে তা জানা যায়নি।এসময় স্থানীয় লোকজন আগুন নিভাতে প্রানপন চেষ্টা চালায়।পরে খবর পেয়ে শ্রীনগর ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিট ও মুন্সীগঞ্জ ফায়ার সাভিসের ১টি ইউনিট এসে ১ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। লঞ্চ ও সিবোট ঘাটের ইজারাদার মার্টিন জানান, বেলা পৌনে ২ টার দিকে তেলের দোকানে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এছাড়া পরিত্যক্ত সিবোটে আগুন লাগে। লৌহজং উপজেলা প্রশাসন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্থদের সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন। শ্রীনগর ফায়ার সার্ভিস ষ্ট্রেশন কর্মকর্তা আরিফুজ্জামান শেখ জানান তেলের দোকান থেকে আগুনের সূত্রপাত হয় তবে কি পরিমান ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা পুরোপুরি জানা সম্বব হয়নি। ক্ষতিগ্রস্থ খলিল জানান আগুনে ১৩টি দোকান ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে এছাড়াও ২টি সীবোর্ট পুরো পুরি পুড়েগেছে প্রায় ৫০লক্ষটাকার মত ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। মাওয়া নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এস আই সুরজিৎ কুমার ঘোষ জানান, আগুন লাগার ঘটনায় কোন হতা হতের ঘটনা ঘটেনি লঞ্চ ও ফেরি চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে । লৌহজং উপজেলা এ্যসিলেন্ড রিনাত ফৌজিয়া ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছেন।

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *